গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন

গুরুত্বপূর্ণ স্থান প্রত্নতাত্ত্বিক ও নিদর্শন

Advertisements

 প্রিয় ছাত্রছাত্রীরা ,
নিচের পোস্টটি ভারতের ইতিহাস থেকে নেওয়া হয়েছে, ভারতীয় ইতিহাস এ যে সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও  প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন গুলি রয়েছে সেই গুলি সম্পর্কে পুরো তালিকা নিচে দেওয়া হল , এই , স্টাডি মেটেরিয়ালস টি pdf পেতে তোমরা নিচের ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে সহজে ডাউনলোড করতে পারো ।

গুরুত্বপূর্ণ স্থান প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন
হরপ্পা (বর্তমানে পাকিস্তানের রবি নদীর তীরে অবস্থিত) সিন্ধু সভ্যতার প্রথম আবিষ্কৃত স্থান। বিশাল শস্যগার গম এবং বার্লি একটি কাঠের হামান দিস্তায় বর্তমান ছিল এছাড়াও পাশা খেলার ছক্কা, তামার দৈর্ঘ্য পরিমাপ করার যন্ত্র এবং আয়না, পাথরের লিঙ্গ ও যোনির চিহ্ন মাতৃত্ব ভগবানের ভাস্কর্য, একটি ব্রোঞ্জের ভাস্কর্য যেখানে দেখা যাচ্ছে একটি কুকুর একটি হরিণকে তাড়া করছে
মহেঞ্জোদাড়ো (বর্তমানে পাকিস্তানের সিন্ধুর নদীর তীরে অবস্থিত) সিন্ধু সভ্যতার বৃহত্তম শহর এছাড়াও সুরক্ষিত দূর্গ, বৃহৎ স্নানাগার,বৃহৎ শস্যাগার (এটিই হল সিন্ধু সভ্যতার বড়ো প্রসাদ) শবদাহনপরবর্তী কবর, একগাল এবং থুতনিতে চুল সমন্বিত ধর্মযাজকের ভাস্কর্য এছাড়াও নৃত্যরত অবস্থার নারী ব্রোঞ্জের মূর্তি এবং পশুপতি মহাদেবের শীল খুব বিখ্যাত ছিল
ধোলাভিরা (গুজরাট) বৃহৎ জলাধার, একবারে নতুন ধরনের জল প্রবাহ, খেলার মাঠ,জলাধার এবং ভেড়ির মতো জিনিসগুলির প্রমাণ লিপিতে পাওয়া যায়। এটি হল সর্বশেষ আবিষ্কৃত সিন্ধু সভ্যতার একটি স্থান
লোথাল (গুজরাটে) সিন্ধু সভ্যতার ম্যাঞ্চেস্টার বলা হত। হরপ্পা সভ্যতার প্রধান বন্দর ছিল এটি “এছাড়াও ধানের তুষ থেকে বোঝা যায় এখানে ধানের চাষ হত” এছাড়াও আগুনের পূজার বেদী, ছবি অঙ্কিত পান এবং এখানে ৪৫°, ৯০°, ১৮০° কোণ পরিমাপ করার যন্ত্র ব্যবহার করা।
রাখিগারহী (হরিয়ানা) সিন্ধু সভ্যতার সব থেকে বড়ো স্থান। এখানে শস্যাগার, কবর,পয়ঃপ্রণালী এবং পোড়ামাটির তৈরি ইটের নিদর্শন পাওয়া যায়।
~রোপার (রবি নদী) পাঞ্জাব, ভারত মানুষের সাথে কুকুরের মৃতদেহ একসঙ্গে কবরে রাখা হত।স্বাধীনতার পর সিন্ধু সভ্যতার প্রথম আবিষ্কৃত স্থান।
বালাথাল ও কালিবঙ্গান (রাজস্থান) ধাতু নির্মিত বালি তৈরির কারখানা খেলনা মালবাহী গাড়ি, উটের হাড়, সুসজ্জিত ইট, দূর্গ এবং আগুনের পূজার বেদী পাওয়া যায়।
সুরকোটাডা (গুজরাট) ঘোড়ার হাড় প্রথম পাওয়া যায়
বনওয়ালি (হরিয়ানা) বার্লি, লাপিস লাজুলি (মূল্যবান পাথর) আগুনের বেদী, একমাত্রর অরীয় ভাবে নির্মিত শহর এবং ডিম্বের মতো অবস্থান
আলমগীর পুর (মীরাট) (যমুনা নদীর তীরে) সিন্ধু সভ্যতার পূর্বতম স্থান, তামার ব্লেড, চিনা মাটির বস্তু
মেহেরগড় (পাকিস্তান) সিন্ধু সভ্যতার পূর্বসুরী বলা হয়। মৃৎ পাত্র, তামার যন্ত্রাদি পাওয়া যায়
চানহুদারো/ভারতের ল্যাঙ্কাশায়ার (পাকিস্তান) একমাত্র শহর কোনও রকম দূর্গ ছাড়াই, গুটিকা তৈরির কারখানা ইত্যাদি
কোটদিজি (পাকিস্তান) ষাড়ের ভাস্কর্য মাতৃদেবীর মূর্তি খনন করার পর পাওয়া যায়
সুক্তা গেন্দোর (পাকিস্তান) সিন্ধু সভ্যতার পশ্চিমতম স্থান, মাটির বালার অস্তিত্ব পাওয়া গেছে
বালু (হরিয়ানা) রসুনের প্রাচীনতম অস্তিত্বের নিদর্শন
দাইমাবাদ (মহারাষ্ট্র) সিন্ধু সভ্যতার দক্ষিণতম স্থান
কোট বালা (পাকিস্তান) অগ্নিকুন্ডের প্রাচীনতম নিদর্শন
মান্দ (পাকিস্তান) সিন্ধু সভ্যতার উত্তরতম স্থান

চাকরির পরীক্ষার এই রকম গুরুত্বপূর্ণ  নোট্‌স ( Study Materials)  পেতে এবং সব সময় আমাদের সাঙ্গে আপডেট থাকতে আমাদের ওয়েবসাইট – www.gurucoolfanda.com ভিসিট করুন ও আমাদের  telegram  এ যুক্ত হন ।

Share the post
Advertisements

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisements
Button
WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now
Instagram Group Join Now