বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি
Advertisements

বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি ও তার ব্যবহার

বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি

প্রিয় ছাত্র ছাত্রীরা নিচে ছকে বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক যন্ত্রের নাম তাদের আবিষ্কার ও ব্যবহার সম্পর্কে বিস্তারিত লিপিবদ্ধ করা হয়েছে , বিগত পরীক্ষা গুলিতে এখান থেকে একাধিক প্রশ্ন এসেছে,
যেমন –

কোন যন্ত্রে বায়ুর চাপ মাপা হয় ?
উত্তর: ব্যারোমিটার

তাই এই বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি এর নাম ও তার ব্যবহার জানলে আগামী দিনের পরীক্ষায় তোমাদের উত্তর করতে সহজ হবে ।

যন্ত্রের নাম আবিষ্কারক ব্যবহার
অন্টিমিটার (Altimeter) পল স্কোলম্যান্ড (জার্মানি, ১৯২৮) উচ্চতা নির্ণয়ের জন্য এই এয়ারক্র্যাফট ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
অ্যামমিটার (Ammeter) ফ্রেডরিক ডেক্সলার (অস্ট্রিয়া, ১৮৮৪)। বর্তনীর তড়িৎ প্রবাহের মান নির্ণয়ের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
অ্যাকুমুলেটর (Accumulator) ওয়ালেন্ডমার জাঙ্গনার' (সুইডেন, ১৮৯৯) বৈদ্যুতিক শক্তি সঞ্চয়ের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
অ্যানিমােমিটার (Anemometer) লিওবাতিস্তা অ্যালবার্তি (ইতালি, ১৪৫০) বায়ুর বল ও গতিবেগ পরিমাপের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
অডিওমিটার (Audiometer) কার্ল সিসাের (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ১৮৯৯) শব্দের তীব্রতা মাপার জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
অডিফোন (Audiphones) আর জি রাডস (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ১৮৮০) শ্রবণের অপূর্ণ অনুভূতির উন্নতির জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
ব্যারােমিটার (Barometer) ইবানগেলিস্টা টরিসেলি (ইতালি, ১৬৪৩) বায়ুমণ্ডলীয় চাপ মাপার জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
ব্যারােগ্রাফ (Barograph) লুসিয়েম বিডি (ফ্রান্স, ১৮৪৪) এটি বায়ুমণ্ডলীয় চাপের ক্রমাগত রেকর্ড মাপার জন্য ব্যবহৃত হয়।
বায়নােকুলার (Binocular) জোহান ফ্রেডরিক গ্যাল্যান্ডার(অস্ট্রিয়া, ১৮২৩) দূরের জিনিস দেখার জন্য ব্যবহৃত হয়।
বােলােমিটার (Bolometer) স্যামুয়েল পি ল্যাঙ্গলে(মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ১৮৮০) তাপ বিকিরণ পরিমাপ করার জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
বুরেট (Burette) এটিনে ওসিয়ান হেনরি (ফ্রান্স, ১৮৪৫) একটি তরলের সর্বোচ্চ ক্ষমতা পর্যন্ত প্রয়ােজনীয়, আয়তন সরবরাহের উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
ক্যালােরিমিটার (Calorimeter) অ্যান্টনি ল্যাভাসিয়র (ফ্রান্স, ১৭৮৯) তাপের পরিমাণ নির্ণয়ের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
কারবিউরেটর (Carburetor) স্যামুয়েল মােরে (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ১৮২৬) পেট্রোল বাষ্প কর্তৃক বাতাস চার্জের উদ্দেশ্যে গাড়িরঅভ্যন্তরীণ দহন ইঞ্জিনে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
কার্ডিওগ্রাম (Cardiogram) উইলিয়াম আইন্টওবেন(নেদারল্যান্ড, ১৯২৪) কার্ডিওগ্রাফে রেকর্ড করা হৃৎপিণ্ডের গতিবিধির চিহ্নিতকরণের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
ক্রোনােমিটার (Chronometer) জন হ্যারিসন (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য, ১৭৬১) জাহাজ থেকে কোন স্থানের দ্রাঘিমাংশ নির্ণয়ের জন্যব্যবহার করা হয়ে থাকে।
সিনেমাটোগ্রাফি (Cinematography) উইলিয়াম ফ্রিস গ্রিন (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য,১৮৮৮) সিনেমা তৈরি, পর্দায় ফুটিয়ে তােলা এবং ফটোগ্রাফের বর্ধিত চিত্রের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
কোলেরিমিটার (Colorimeter) জুলস জাবাস্কি (ফ্রান্স, ১৮৭০) বিভিন্ন রং-এর তীব্রতার তুলনা করার জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
কমিউটেটর (Commutator) উইলিয়াম রিচি (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য) এবং হিপােলাইট পিক্সি (ফ্রান্স) ১৮৩২ তড়িৎপ্রবাহের দিকনির্দেশ পরিবর্তন বা বাতিল করা এবং (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ১৮৩২) ডায়নামােতে বিকল্প তড়িৎপ্রবাহকে ‘এসি’ থেকে সরাসরি তড়িৎপ্রবাহে ‘ডিসি’-তে পরিণত করার জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
ক্রেসকোগ্রাফ (Crescograph) জগদীশ চন্দ্র বসু (ভারত, ১৯১৯) উদ্ভিদের বৃদ্ধি পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়ে থাকে।
সাইক্লোট্রোন (Cyclotron) আর্নেস্ট লরেন্স (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ১৯৩০) একটি চার্জযুক্ত কণা ত্বরক যা উচ্চশক্তিতে চার্জযুক্ত কণাগুলিকে ত্বরান্বিত করতে পারে।
ডায়নামাে (Dynamo) মাইকেল ফ্যারাডে (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য, ১৮৩১) যান্ত্রিক শক্তিকে তড়িৎশক্তিতে রূপান্তর করতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
ডায়নামােমিটার (Dynamometer) এডমি রেগনিয়ার (ফ্রান্স, ১৭৯৮) বল, টর্ক এবং ক্ষমতা নির্ণয়ের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
ইলেকট্রোমিটার (Electrometre) গ্যাব্রিয়েল লিপম্যান (লুক্সেমবার্গ, ১৮৭৩) বিদ্যুৎ পরিমাপের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
ইলেকট্রোস্কোপ (Electroscope) উইলিয়াম গিলবার্ট (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য, ১৬০০) তড়িৎ আধানের উপস্থিতি নির্ণয়ে ব্যবহৃত হয়।
এন্ডােস্কোপ (Endoscope) অ্যান্টনি জিন ডেসরসিয়াক্স (ফ্রান্স, ১৮৫৩) দেহের আভ্যন্তরীণ অংশ পরীক্ষার জন্য ব্যবহৃত হয়।
ইউডিওমিটার (Eudiometer) মার্সিলাে ল্যান্ডারিয়ানি (ইটালি) এটি একটি কাচের নল যার মধ্যে গ্যাসের রাসায়নিক বিক্রিয়ায় আয়তন পরিবর্তন পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত
(Fathometer) হার্বাট গ্লোব ডাের্সে (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ১৯৩০) সমুদ্রের গভীরতা নির্ণয়ের জন্য ব্যবহৃত হয়।
গ্যালভানােমিটার (Galvanometer) জোহান সিঙ্গার (জার্মানি, ১৮২০) এটি কম মাত্রার বৈদ্যুতিক প্রবাহ পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত হয়।
হাইড্রোমিটার (Hydrometer) উইলিয়াম নিকলসন (ব্রিটিশ যুক্তরাষ্ট্র, ১৭৯০) তরলের আপেক্ষিক গুরুত্ব পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত হয়।
হাইগ্রোমিটার (Hygrometer) Dirytopia (Hydrophone) লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি (ইটালি, ১৪৮০) বায়ুর আর্দ্রতা পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত হয়।
হাইড্রফোন জলের অভ্যন্তরে শব্দ পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত হয়।
কিমােগ্রাফ (Kymograph) কার্ল লুডউইগ (জার্মানি, ১৮৪০) শারীরিক ক্রিয়াকলাপের গ্রাফিক্যালি রেকর্ডের জন্য ব্যবহৃত হয়। রক্তচাপ এবং হৃদস্পন্দন মূলত পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত হয়।
ল্যাকটোমিটার (Lactometer) ডিকা (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য) দুধের বিশুদ্ধতা পরিমাপ করার জন্য ব্যবহৃত হয়।
ম্যানােমিটার (Manometer) ওস্টো ভন গুয়েরিকে (জার্মানি) গ্যাসের চাপ পরিমাপ করার জন্য ব্যবহৃত হয়।
ম্যারিনার্স কম্পাস (Mariner's Compass) দিকনির্দেশ নির্ধারণের জন্য নাবিকদের দ্বারা ব্যবহৃত যন্ত্র।
মাইক্রোফোন (Microphone) জেমস ওয়েস্ট (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ১৯৬২) শব্দ তরঙ্গকে বৈদ্যুতিক কম্পনে রূপান্তরিত করতে এবং শব্দকে দীর্ঘায়িত করতে ব্যবহৃত হয়।
মাইক্রোস্কোপ (Microscope) জ্যাকারিস জানসেন (নেদারল্যান্ড, ১৫৯০) ক্ষুদ্র উপাদানকে বৃহদাকৃতি করতে ব্যবহৃত হয়।
ওডােমিটার (Odometer) টমাস স্যাবারি (ইটালি) চাকাযুক্ত যানবাহনের অধিকৃত দূরত্ব পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
পেরিস্কোপ (Periscope) জুল, কার্পেন্টার (ফ্রান্স) সমুদ্রের তলদেশে বস্তু দেখতে ব্যবহৃত হয়। মূলত সাবমেরিনে ব্যবহৃত হয়।
ফোনােগ্রাফ (Phonograph) CAICOISTUS (Photometer) টমাস এডিসন (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ১৮৭৬) শব্দ উৎপাদনের জন্য ব্যবহৃত হয়।
ফটোমিটির দিমিত্রি ল্যাচিনব (রাশিয়া) আলাের উৎসের উজ্জ্বল তীব্রতার সহিত তুলনা করার জন্য ব্যবহৃত হয়।
পাইরােমিটার (Pyrometer) জোসিরা ওয়েজউড (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য) উচ্চতাপমাত্রা পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত হয়।
পােটোনটিওমিটার (Potentiometer) টমাস এডিসন (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ১৮৭২) এটি কোষের ইলেকট্রোমােটিভ বল তুলনা করার জন্য ব্যবহৃত হয়।
কোয়ার্জ ক্লক (Quartz Clock) জোসেফ ডব্লু হর্টন এবং ওয়ারেন এ ম্যারিসন (কানাডা, ১৯২৭ জ্যোতির্বিদ্যা পর্যবেক্ষণ এবং নির্ভুল কাজে ব্যবহৃত ঘড়ি।
র‍্যাডার(Rador) হেনরিচ হার্জ (জার্মানি) এটি মাধ্যম বা রেডিও মাইক্রোওয়েভের মাধ্যমে সমতলের দিক এবং পরিসীমা শনাক্ত করতে ব্যবহৃত হয়।
রেডিওমিটার (Radiometer) উইলিয়াম ক্রুকস (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য, ১৮৭৩) উজ্জ্বল শক্তি নির্গমন পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
রেন গজ (Rain Gauge)। চিগুজি, (দক্ষিণ কোরিয়া, ১৪৪১) একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলের বৃষ্টিপাতের পরিমাপ নির্ণয়করতে ব্যবহৃত হয়।
রেকটিফায়ার (Rectifier) পিটার কুপার হিউট (মার্কিন যুক্তরাজ্য) বিকল্প তড়িৎপ্রবাহ (AC) কে সরাসরি তড়িৎপ্রবাহ (DC) তে পরিবর্তিত করতে ব্যবহৃত হয়।
রিফ্রেক্টোমিটার (Refractometer)| আর্নেস্ট আবে (জার্মানি) প্রতিসরাঙ্ক পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
স্যাকারোমিটার (Saccharometer] থমাস থমসন (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য) দ্রবণে চিনির পরিমাণ পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
স্যালিনােমিটার (Salinometer) টিম ধৌপিনি (কানাডা, ১৯৭৫) দ্রবণের লবণাক্ততা পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
সিসমগ্রাফ(Seismograph) জ্যাং হেং (চীন) ভূমিকম্পের তীব্রতা পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
স্ক্রিউ গজ (Screw Gauge) উইলিয়াম গ্যাসকোগনে (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য) পাতলা কাচের প্লেটের গুরুত্ব পরিমাপ করতে এবং পুরুতার ও ক্ষুদ্র গােলকের ব্যাস পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
সেক্সটেন্ট (Sextant) জন হেডলি ও থমাস গডপ্রে (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য, ১৭৩১) সূর্য বা অন্য নক্ষত্রের দিগন্তের উপরে উচ্চতা পরিমাপ করে স্থানের অক্ষাংশ খুঁজে বের করতে নাবিকদের মাধ্যমে এটি ব্যবহৃত হয়।
সােনােমিটার (Sonometer) এটিয়েন লুইলি (১৬৯৪) স্বনশূল' বা টিউনিং ফর্কের কম্পাঙ্ক পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
স্পেকট্রোস্কোপ (Spectroscope) গুস্তাব ক্ৰিচোফ এবং রবার্ট বুনসেন (জার্মানি, ১৮৬০) বর্ণালী বিশ্লেষণ করতে ব্যবহৃত হয়।
প্রেকটোমিটার (Spectrometer) জোসিফ বেলুসিক (ক্রোয়েশিয়া, ১৮৮৮) নির্দিষ্ট ধরনের বিকিরণের শক্তি বিতরণ পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
স্পিডােমিটার (Speedometer) রবার্ট অ্যাপলে কোয়েক (ফ্রান্স, ১৮১০) যানবাহনের গতিবেগ পরিমাপে ব্যবহৃত হয়।
স্পেরােমিটার (Spherometer) (Sphygmomanometer) বন বাস (অস্ট্রিয়া, ১৮৮১) পৃষ্ঠতলের বক্রতা পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়। স্পিগমােম্যানােমিটার চার্লস ওয়েটস্টোন রক্তচাপ পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
স্টিরিওস্কোপ (Stereoscope) চার্লস ওয়েস্তোন (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য, ১৮৩৮) দ্বিমাত্রিক চিত্র দেখার জন্য ব্যবহৃত হয়।
স্টেথােস্কোপ (Stethoscope) রেনে ল্যানেক (ফ্রান্স, ১৮১৬), হৃৎপিণ্ড এবং ফুসফুসের শব্দ ডাক্তাররা শুনতে এবং বিশ্লেষণ করতে ব্যবহৃত হয়।
স্ট্রেবােস্কোপ (Stroboscope) যােসেফ প্লেটিউ (বেলজিয়াম, ১৮৩২) দ্রুত চলমান বস্তু দেখতে ব্যবহৃত হয়।
টেকোমিটার (Tachometer) জোসিফ বেলুসিক (ক্রোয়েশিয়া) উড়ােজাহাজ এবং মােটর বােটের গতি পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
টেলিপ্রিন্টার (Teleprinter) ডােনাল্ড মুরে (নিউজিল্যান্ড) টাইপ করা ম্যাসেজ এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় প্রেরণ ও গ্রহণে ব্যবহৃত হয়।
টেলিস্কোপ (Telescope) গ্যালিলিও গ্যালেলি (ইতালি, ১৬০৯) মহাকাশে দূরবর্তী বস্তু দেখতে ব্যবহৃত হয়।
থার্মোমিটার(Thermometer) ড্যানিয়েল ফারেনহাইট (জার্মানি, ১৭০৯) তাপমাত্রা পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
থার্মোস্ট্যাট (Thermostat) মার্ক হনিওয়েল (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ১৯০৬) নির্দিষ্ট অঞ্চলের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যবহৃত হয়।
থিওডােলাইট (Theodolite) লিওনার্ড ডিগ্রেস ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য, ১৫৫০) উলম্ব এবং অনুভূমিক কোণ পরিমাপে ব্যবহৃত হয়।ওয়াল্টার ব্রাটেন (১৯৪৭)
ট্রানজিস্টর (Transistor) উইলিয়াম শকালে (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র) জন বার্ডিন (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য), ওয়াল্টার ব্রাটেন (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র) ১৯৪৭ ক্ষুদ্র ডিভাইস যা স্রোত প্রসারিত করতে এবং অন্যান্য কার্য সম্পাদন করতে ব্যবহৃত হয় যা সাধারণত একটি থার্মিয়নিক ভালভ দ্বারা সঞ্চালিত হয়।
ভার্নিয়ার ক্যালিপার্স (Vernier Callipers) পিয়ের ভার্নিয়ার (ফ্রান্স, ১৬৩১) স্কেলের ছােট উপবিভাগ পরিমাপের জন্য একটি সামঞ্জস্যযােগ্য স্কেল।
ভােল্টামিটার (Voltameter) অ্যান্ড্রু কে (১৯৫৪) দুটি পয়েন্টের তড়িৎ বিভব প্রভেদ পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত হয়।
ভােল্টামিটার (Voltameter) আগস্ট উইলেম বন হফম্যান (জার্মানি, ১৮৮৬) ইলেকট্রোলাইটিক ক্রিয়াকলাপের মাধ্যমে তড়িৎ আধান পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
ভিসকোমিটার (Viscometer) লিও উব্বেলােদে (জার্মানি) তরলের সান্দ্রতা পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
ফুজিতা স্কেল (Fujita Scale) ডঃ টেটসুয়া থিওডর ফুজিতা (জাপান) টর্নেডাের তীব্রতা পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়।
অক্সানােমিটার (Auxanometer) বানিংসবার্জার উদ্ভিদের বৃদ্ধি পরিমাপে ব্যবহৃত হয়।
পােটোমিটার (Potometer) গ্যানং শ্বাস-প্রশ্বাসের পরিমাপ নির্ণয়ে ব্যবহৃত হয়।
পাইরােমিটার (Pyrometer) জোসিয়া ওয়েজউড (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য) উচ্চ তাপমাত্রা নির্ণয়ে ব্যবহৃত হয়।
GPICTUS (Cryometer) - নিম্ন তাপমাত্রা নির্ণয়ে ব্যবহৃত হয়।
জি এম কাউন্টার (GM Counter) হেন্স জিগার এবং ওয়াল্টার মূলার, (জার্মানি, ১৯২৮) তেজস্ক্রিয়তা পরিমাপে ব্যবহৃত হয়।
অ্যাকটিনােমিটার (Actinometer) জন হার্সেল (ব্রিটিশ যুক্তরাজ্য, ১৮২৫) সৌর বিকিরণ পরিমাপে ব্যবহৃত হয়।
নেফোস্কোপ (Nephoscope) মিখাইল পােমাের্টসেব (রাশিয়া, ১৮৯৪) মেঘের চলন ও গতিবেগ নির্ণয়ে ব্যবহৃত হয়।

For Details

Click Here
Share the post
Advertisements

Similar Posts

2 Comments

  1. Heya i’m for the first time here. I found this board and I find It really helpful & it helped me out a lot. I’m hoping to provide something back and help others like you helped me.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisements
Button
WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now
Instagram Group Join Now